এমসি কলেজে গণধর্ষণ : প্রতিবাদে সিলেট অগ্রদূত ছাত্র পরিষদের মানববন্ধন

সিএনবাংলা ডেস্কঃসিলেটের মুরারিচাঁদ (এমসি) কলেজ ছাত্রাবাসে ছাত্রলীগের কয়েকজন কর্মীকর্তৃক স্বামীকে বেঁধে রেখে স্ত্রীকে গণধর্ষণ করার প্রতিবাদে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করতছে সিলেট অগ্রদূত ছাত্র পরিষদ।

আজ রোববার (২৭ সেপ্টেম্বর) বিকাল ৫ টায় নগরীর কোর্ট পয়েন্টের সামনে এ মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করা হয়।

এসময় মানববন্ধনে উপস্থিত নেতা-কর্মীরা বিভিন্নরকম প্রতিবাদী বাক্য লেখা প্ল্যাকার্ড প্রদর্শন করেন।

উক্ত মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন অগ্রদূত ছাত্র পরিষদের সভাপতি কাবিল আহমেদ,সাধারণ সম্পাদক আবুল কালাম আজাদ, সহ-সভাপতি আহমদ হুসাইন,সাংঘটনিক সম্পাদক আব্দুর রাবু,কোষাধ্যক্ষ আব্দুর রব জাহিদ,প্রবাসী সম্পাদক হামিদুর রহমান,শিক্ষা-বিষয়ক সম্পাদক তৌহিদুল ইসলাম,প্রকাশনা সম্পাদকআহমেদ নাহিদ,সহ-শিক্ষা বিষয়ক সম্পাদক আব্দুল ওয়াহিদ,ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক ইয়াসির আরাফাত, সাহিত্য সম্পাদক আব্দুল্লাহ আল এনাম,প্রচার সম্পাদক জামিল হুসাইন,রাজুআহমদ, ইসমাইল আহমদ,বদরুল ইসলাম, মুহিন আহমেদ মান্না ও প্রমুখ।

মানববন্ধনে বক্তারা বলেন, ধর্ষকের আলাদা কোন জাত নেই, ধর্ম নেই, রাজনীতি নেই, তার একটাই পরিচয় সে ধর্ষক। তাই জঘন্যতম এমন কর্মকাণ্ড যারা করেছে তাদের প্রত্যেককে আইনের আওতায় নেনে শাস্তি প্রদান করা হোক। তাদেরকে শাস্তি প্রদানের মাধ্যমে কলঙ্কিত এ অধ্যায় থেকে সিলেটের মানুষকে মুক্ত করা হোক।

প্রসঙ্গত, শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাত সাড়ে ৭ টার দিকে সিলেট এমসি কলেজের হোস্টেলে এক তরুণীকে গণধর্ষণ করেছে মহানগর ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতাকর্মী। অভিযুক্ত এসব কর্মীরা সিলেট জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুব ও ক্রীড়াবিষয়ক সম্পাদক রণজিৎ সরকারের অনুসারী বলে জানা গেছে।

এদিকে তরুণীকে গণধর্ষণের ঘটনায় ৬ জনকে আসামি করে এসএমপির শাহপরাণ থানায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। নির্যাতিত ওই তরুণীর স্বামী মাইদুল ইসলাম বাদী হয়ে এ মামলা দায়ের করেন।

মামলার আসামিরা হলো- এমসি কলেজ ছাত্রলীগ নেতা সাইফুর, শাহ রনি, অর্জুন, মাহফুজ, রবিউল ও তারেক।

এ ঘটনায় ইতোমধ্যে রোববার (২৭ সেপ্টেম্বর) সকালে প্রধান আসামি সাইফুর রহমান ও ৪র্থ আসামি অর্জুন লস্করকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সাইফুরকে সুনামগঞ্জ জেলার ছাতক উপজেলা থেকে আর অর্জুন লস্করকে মাধবপুর উপজেলার মনতলা থেকে গ্রেপ্তার করা হয়।

সিএনবাংলা /শোভন

Sharing is caring!

 

 

shares