পল্টন ট্রাজেডি দিবস উপলক্ষে সিলেটে মহানগর শিবিরের বিক্ষোভ মিছিল

২৮শে অক্টোবরসহ বিভিন্ন সময়ে করা প্রতিটি খুন, গুম ও অবিচারের হিসাব কড়ায়-গন্ডায় আদায় করা হবেঃ আব্দুল্লাহ আল-ফারুক

২০০৬ সালে ২৮ অক্টোবর আওয়ামী লগি-বৈঠার তান্ডব নির্মম ও নিষ্ঠুর হত্যাকান্ডের প্রতিবাদে এবং অবিলম্বে খুনীদের বিচারের আওতায় এনে শাস্তির দাবিতে সিলেটে বিক্ষোভ মিছিল করেছে বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবির সিলেট মহানগর শাখা।

শুক্রবার (২৮ অক্টোবর) বিক্ষোভ মিছিলটি নগরীর আম্বরখানা পয়েন্ট থেকে শুরু হয়ে নগরীর বিভিন্ন সড়ক প্রদক্ষিন করে হাউজিং এস্টেট পয়েন্টে গিয়ে সংক্ষিপ্ত সমাবেশের মাধ্যমে শেষ হয়। নগর সেক্রেটারী সিদ্দিক আহমদের সঞ্চালনায় মিছিল পরবর্তী সংক্ষিপ্ত সমাবেশে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের কেন্দ্রীয় কার্যকরী পরিষদ সদস্য ও সিলেট মহানগর সভাপতি আব্দুল্লাহ আল-ফারুক।

মিছিল পরবর্তী সংক্ষিপ্ত সমাবেশে আব্দুল্লাহ আল-ফারুক বলেন, ২৮ আক্টোবরের নির্মম ও নিষ্ঠুর হত্যাকান্ড জাতির কপালে কলংকতিলক লেপে দিয়েছে। সেদিনের পৈশাচিক নিষ্ঠুরতা দেখে জাতি কেঁদেছে এবং বিশ্ববিবেক বাকরুদ্ধ হয়েছে। ক্ষমতার লোভ কোনো দল ও তার নেতা-নেত্রীদের কতটা নিষ্ঠুর ও উন্মাদ করতে পারে ২৮শে অক্টোবরে তারই এক ভীতিকর উদাহরণ সৃষ্টি করেছিল আওয়ামী বাহিনী। সেদিন ফ্যাসিস্ট আওয়ামী সন্ত্রাসীরা দেশে মানবিক বিপর্যয় সৃষ্টি করেছিল। শুধু হত্যাই নয়, মৃত লাশের উপর নৃত্য করার দৃশ্যও প্রত্যক্ষ করে দেশববাসী। দুঃখজনক হলেও সত্য, যেসব সন্ত্রাসী সেদিন হায়েনার রুপ ধারণ করে জামায়াত -শিবির নেতাকর্মীদের উপর হামলা চালিয়েছে, তারা আজো বাংলাদেশের মাটিতে সক্রিয় থেকে তান্ডব চালাচ্ছে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী সরকার এইসব সন্ত্রাসীদের পেশীতে ভর করেই ক্ষমতায় টিকে থাকতে চাইছে। খুনিরা এখনো বহাল তবিয়েতে আছে এবং দেশ ও ইসলাম বিরোধী নানা ষড়যন্ত্রেও নেতৃত্ব দিচ্ছে। এই খুনীদের বিচার না হওয়ায় বাংলাদেশে বিচাহীনতার সংস্কৃতির এক উজ্বল দৃষ্টান্ত। অবশ্যই ক্ষমতার পালা বদল হবে কিন্তু ২৮শে অক্টোবরের বর্বরতার ইতিহাস কখনো মুছে যাবে না। সময়ের ব্যবধানে অবশ্যই খুনিদের বিচারের কাঁঠগড়ায় দাঁড়াতে হবে।

আব্দুল্লাহ আল-ফারুক আরো বলেন, ২৮ অক্টোবর আওয়ামী অপশক্তি বাংলার জমিন থেকে ইসলামী আন্দোলনকে ধ্বংস করে দিতে এক ভয়াবহ নারকীয়তার অবতারণা করে কিন্তু তাদের স্বপ্ন পূরণ হয়নি। আমরা দুঃখে ভারাক্রান্ত ঠিকই, কিন্তু হতাশ নই। শহীদের রক্তাক্ত দেহগুলো আমাদের ভীত করে না বরং সেখান থেকে অনুপ্রেরণা নিয়ে প্রতি ফোটা রক্তের বদলা নিতে আমরা শপথবদ্ধ হই। চিহ্নিত খুনিদের রক্ষা করতে সরকার ক্ষমতার দাপটে মামলা প্রত্যাহার করেছে। কিন্তু এ অপকৌশলে নিরাপরাধ সন্তান হারানো মায়েদের বুকফাটা আর্তনাদ ব্যর্থ হবে না, রক্তের দাগও মুছে যাবে না। ২৮শে অক্টোবরসহ বিভিন্ন সময়ে করা প্রতিটি খুন, গুম ও অবিচারের হিসাব কড়ায়-গন্ডায় আদায় করা হবে। হাজারো মুজাহিদ, শিপন, মাসুমরা আজ ২৮শে অক্টোবরের শহীদদের স্বপ্ন পূরণের শপথ নিয়েছে। সেই শহীদেরা চিরদিন প্রেরণার বাতিঘর হয়ে থাকবেন। শহীদদের রেখে যাওয়া দায়িত্ব পালনে প্রয়োজনে সর্বোচ্চ ত্যাগের মানষিকতা নিয়ে ময়দানে থেকে বাতিলের মোকাবেলা করতে হবে।

বিক্ষোভ মিছিল ও সমাবেশে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে সভাপতি রাহাত বিন সায়েফ, সিলেট জেলা পূর্বের সভাপতি সাহার বিন সামাদসহ মহানগর শিবিরের বিভিন্ন ওয়ার্ড, থানা শিবিরের বিপুল সংখ্যক নেতাকর্মীরা। বিজ্ঞপ্তি

 

Sharing is caring!

 

 

shares