সিলেটে বোন জামাইকে মদ দিয়ে ফাঁসানোর চেষ্টা, গ্রেফতার ৩

সিএনবাংলা ডেস্ক: জালালাবাদ থানাধীন শহরতলীর নোয়াগাঁও গ্রামে বোনের জামাই শিক্ষা দেয়ার জন্য ১০ বোতল অফিসার চয়েজ রেখে নাটক সাজানোর চেষ্টা করেন আজিজুর রহমান নামের এক ব্যক্তি।পুরো বিষয়টি পুলিশের কাছে সন্দেহ হলে পুলিশ ইমরান ও রায়হান নামের দুজনকে ধরে নিয়ে আসলে তারা ঘটনার বিস্তারিত তুলে ধরে পুলিশের কাছে। টাকার বিনীময়ে আজিজুর রহমানের কথামত মদগুলো তারা শহরতলীর শাহজালাল সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পিছনে আলীম উদ্দিনের নির্মানাধীন ভবনের ২য় তলায় রাখার পর পুলিশকে খবর দেয়।

রবিবার (২ আগস্ট) রাতে এ ঘটনাটি ঘটে। সোমবার (৩ আগস্ট) গ্রেফতারকৃত সোর্স ইমরান, রায়হান, আজিজুর রহমানকে মাদক মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করে। গ্রেফতারকৃতদের বিরুদ্ধে জালালাবাদ থানায় মাদক আইনে মামলা নং-১ দায়ের করেন এসআই নাজমুল আলম।

পুলিশ জানায়, সোর্সের দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে ঘটনার মূল হোতা মদিনা মার্কেটস্থ আহমদ কমপ্লেক্স থেকে আজিজুর রহমানকে (৫০) গ্রেফতার করে ঘটনাস্থলে নিয়ে আসা হয়। এরপর রহস্যের জট খুলতে শুরু করে। তিনি পুলিশের কাছে স্বীকার করেন বোন জামাইকে শিক্ষা দেয়ার জন্য রবিবার (২ আগস্ট)সন্ধ্যায় মান্নান ওরফে পাগলা (৩৫) কাছ থেকে ১০ বোতল অফিসার চয়েস মদ ক্রয় করিয়া আজিজুর তার নিজ বাড়িতে এনে রাখেন। পরবর্তীতে সোর্স ইমরান (২৫) রায়হান (২২) সহযোগীতায় তাহার বোনের স্বামীকে ফাঁসানোর উদ্দেশ্যে ক্রয়কৃত মাদকদ্রব্য ঘটনাস্থলে নিয়া রাখার পাশাপাশি সোর্স সেজে পুলিশকে সংবাদ দেয়।

বিষয়টি নিশ্চিত করেন মহানগর পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা অকিল উদ্দিন। তিনি জানান, গ্রেফতারকৃত আজিজুর রহমানসহ ৩জনকে মাদক মামলায় গ্রেফতার দেখিয়ে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

সিএনবাংলা/একেজে

Sharing is caring!

 

 

shares