যে কারণে জেলা বিএনপির কাউন্সিল স্থগিত

নিউজ ডেস্কঃ আগামীকাল সোমবার (২১ মার্চ) সিলেট জেলা বিএনপির সম্মেলন ও কাউন্সিল হওয়ার কথা ছিলো। সিলেট আলিয়া মাদরাসা মাঠে সোমবার সকালে সম্মেলন ও দুপুর থেকে কাউন্সিলরদের ভোট প্রদানের সময় নির্ধারণ করেছিলেন নেতৃবৃন্দ।

কিন্তু হঠাৎ করে আগের দিন (আজ রবিবার) দুপুর ১টার দিকে কেন্দ্রের নির্দেশে এই সম্মেলন ও কাউন্সিল স্থগিত করা হয়েছে। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কামরুল হুদা জায়গীরদার।

প্রায় ৬ বছর পর আয়োজন করা হয়েছিলো সিলেট জেলা বিএনপির সম্মেলন। সম্মেলনকে ঘিরে নেতাকর্মীদের মধ্যে দেখা দিয়েছিলো ব্যাপক উৎসাহ। সোমবার সকালে নগরের আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে অনুষ্ঠিতব্য সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকার কথা ছিল বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসল আলমগীরের।
ইতোমধ্যে সম্মেলনকে ঘিরে প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। আলিয়া মাদ্রাসা মাঠে চলছে মঞ্চ নির্মাণ কাজ।

সম্মেলন শেষে কাউন্সিল হওয়ার কথা ছিল। এতে সভাপতি, সাধারণ সম্পাদক ও সাংগঠনিক সম্পাদক পদে নির্বাচনেরও প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছিলো। এই ৩ পদে ১৩ জন নেতা প্রার্থী হয়েছিলেন। প্রায় ১৮০০ কাউন্সিলর ভোটের মাধ্যমে নেতা নির্বাচন করতেন।কাউন্সিলের জন্য কাউন্সিলরদের মধ্যে কার্ডও বিতরণ করা হয়েছে জানিয়ে জেলা বিএনপির নির্বাচন পরিচালনা কমিটির সদস্য ও জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এটিএম ফয়েজ বলেন, আমরা সব প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছিলাম। তবে হঠাৎ করেই সম্মেলন স্থগিত করা হল। কেনো স্থগিত করা হল তা এখনও আমি জানি না। সরকারের চাপও থাকতে পারে।তবে সিলেট জেলা বিএনপির আহ্বায়ক কমিটির সদস্য আলী আহমেদ জানান, সম্মেলনের এক সপ্তাহ আগে ভোটার তালিকা জমা দিতে হয়। কিন্তু নির্ধারিত সময়ের মধ্যে ভোটার তালিকা না পাওয়ায় কেন্দ্রীয় কমিটি সম্মেলন স্থগিত করেছে।

আরেকটি সূত্র জানিয়েছে, বিয়ানীবাজার উপজেলা বিএনপির নতুন কমিটি নিয়ে দ্বন্দ্বের কারণে জেলার সম্মেলন ও কাউন্সিল স্থগিত করা হয়েছে।এদিকে, আগামীকালের সম্মেলন ও কাউন্সিল স্থগিত করা হলেও পরবর্তী তারিখ এখনও কেন্দ্র থেকে জানানো হয়নি।

Sharing is caring!

 

 

shares