কোম্পানীগঞ্জে লাইব্রেরিয়ান ও অফিস সহকারী নিয়োগে স্কুল কমিটির সভাপতি ও প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও ঘুষ লেনদেনের অভিযোগ

স্টাফ রিপোর্টার: সিলেটের কোম্পানীগঞ্জ উপজেলাধীন ঢালার পাড় উচ্চ বিদ্যালয়ের লাইব্রেরিয়ান ও অফিস সহকারী পদে লোক নিয়োগে স্কুল কমিটির সভাপতি ও প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে অনিয়ম ও ঘুষ লেনদেনের অভিযোগ পাওয়া গিয়েছে।

আজ ০৭ অক্টোবর বুধবার নিয়োগ প্রার্থী কৌশিক রঞ্জন মোহন্ত নামে এক দরখাস্তকারী সিলেটের জেলা প্রশাসক বরাবর সভাপতি ও প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে
অভিযোগ দাখিল করেছেন।

অভিযোগে বলা হয় দরখাস্তকারী কৌশিক রঞ্জন মোহন্ত বিগত ২৩/০৮/২০২০ইং তারিখে উক্ত প্রতিষ্ঠানে লাইব্রেরিয়ান পদের জন্য আবেদন করেন।

একই সাথে ৭৩ জন উক্তপদে এবং ২৫ জন অন্য পদে নিয়োগের জন্য আবেদন পত্র জমা দেন।

দরখাস্তকারী অভিযোগে উল্লেখ করেন যে আমি বিশ্বস্ত সূত্রে খবর পাই,বিভিন্ন পদে চাকুরীতে নিয়োগ প্রদানের জন্য  আগামীকাল ০৮ অক্টোবর বৃহস্পতিবার মৌখিক পরীক্ষার সময় নির্ধারন করা হয়েছে।

কিন্তু আমাকে জানানো হয় নাই।এমন কি আর কোন পরীক্ষার্থীকেও ইন্টারভিউ কার্ড দেয়া হয় নাই এবং নিয়োগ পরীক্ষার তারিখও জানানো হয় নাই। স্কুল কমিটির অন্যান্য সদস্যও পরীক্ষার ব্যাপারে কিছুই জানেন না।

অভিযোগে উল্লেখ করা হয় সভাপতি ও প্রধান শিক্ষক মিলে ১০ থেকে ১৫ লক্ষ টাকা ঘুষ লেনদেনের মাধ্যমে নিজেদের লোক নিয়োগের পায়তারা করছেন।

এমতাবস্থায় ঘুষ দুর্নীতির মাধ্যমে উক্ত পদ সমূহে অনিয়মতান্ত্রিক উপায়ে লোক নিয়োগ দিলে এলাকায় ব্যাপক দাঙ্গা-হাঙ্গামা সৃষ্টি হতে পারে। তাই দরখাস্তকারী কৌশিক রঞ্জন মোহন্ত উক্ত অবৈধ নিয়োগ প্রক্রিয়া বাতিল ও বন্ধের জন্য জেলা প্রশাসকের হস্তক্ষেপ কামনা করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে অনুরোধ জানান।

জানা যায় স্কুলের প্রধান শিক্ষক মোছাঃ বিউটি বেগম স্কুল কমিটির সভাপতি আবু বক্কর সিদ্দিক এর ছোট ভাইয়ের স্ত্রী।তারা (সভাপতি ও প্রধান শিক্ষক) নিয়োগ প্রক্রিয়াটি সম্পূর্ণভাবে গোপন রেখেছেন।

এছাড়া স্কুল কমিটির সভাপতি ও প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অনিয়ম,দূর্নীতি, অর্থ আত্মসাৎ ও আর্থিক বিভিন্ন কেলেংকারীর  ব্যাপারে বিভাগীয় শিক্ষা  উপপরিচালক ও জেলা শিক্ষা অফিসার বরাবর ভূক্তভূগীরা ইতোপূর্বে বিভিন্ন অভিযোগ দিয়েছিল।

Sharing is caring!

 

 

shares