এমসি ছাত্রাবাসে গৃহবধু গণধর্ষণ: জালালাবাদ ইমাম ফাউন্ডেশন সিলেটের নিন্দা

সিএনবাংলা ডেস্কঃ বৃহত্তর সিলেটের শতবর্ষের ঐতিহ্যের স্মারক এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে স্বামীকে বন্দী করে গৃহবধুকে গণধর্ষণের ন্যাক্কারজক ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন জালালাবাদ ইমাম ফাউন্ডেশন সিলেটের নেতৃবৃন্দ। এমন বর্বর ঘটনায় জড়িতদের দৃষ্টান্তমুলক সর্বোচ্চ শাস্তি নিশ্চিত করার জোর দাবী জানান তারা।

এক বিবৃতিতে জালালাবাদ ইমাম ফাউন্ডেশন সিলেটের সভাপতি ক্বারী মাওলানা মতিউর রহমান, সেক্রেটারী হাফিজ মাওলানা মাহবুবুর রহমান, সহ- সভাপতি হাফিজ মাওলানা আব্দুল হালিম, সহ-সভাপতি হাফিজ মাওলানা নাসির উদ্দিন, সহ-সভাপতি মাওলানা জামাল আহমদ, সহ-সেক্রেটারি মাওলানা সাদিক সিকান্দার, সহ-সেক্রেটারি হাফিজ মাওলানা শফিকুর রহমান, সাংগঠনিক সম্পাদক মাওলানা জয়নাল আবেদীন কোম্পানিগঞ্জী, সহ- সাংগঠনিক মুফতি মাওলানা দেলোয়ার হোসেন, অর্থ সম্পাদক হাফিজ মাওলানা আব্দুল আহাদ, প্রচার সম্পাদক হাফিজ মাওলানা মুখলিসুর রহমান, নির্বাহী সদস্য মাওলানা আসাদ উদ্দিন, মাওলানা সাদিকুর রহমান, হাফিজ মাওলানা শরীফ শাহজালাল, হাফিজ মাওলানা লুৎফুর রহমান নজিবী, মাওলানা বেলাল আহমদ ও হাফিজ মাওলানা নুর আহমদ প্রমূখ নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশের আধ্যাত্মিক রাজধানী খ্যাত হযরত শাহজালাল (র.) ও হযরত শাহপরান (র.) সহ ৩৬০ আউলিয়ার স্মৃতি বিজড়িত পূণ্যভুমি সিলেটের মাটিতে এমসি কলেজের মতো শতবর্ষের পুরনো ঐতিহ্যবাহী ছাত্রাবাসে স্বামীর কাছ থেকে স্ত্রীকে ছিনিয়ে নিয়ে পালাক্রমে গণধর্ষণ আইয়্যামে জাহেলিয়াতকেও হার মানিয়েছে। সারা দেশের মধ্যে সিলেটের রয়েছে গৌরবোজ্জল ইতিহাস ও ঐতিহ্য। কতিপয় ধর্ষক পূণ্যভুমি সিলেটের ইতিহাস ঐতিহ্যকে কলুষিত করেছে। এমন ন্যাক্কারজনক ঘটনার নিন্দা জানানোর ভাষা আমরা হারিয়ে ফেলেছি। ঘটনার সাথে জড়িত ৭জন আসামীকে ইতোমধ্যে গ্রেফতার করা হয়েছে। অবিলম্বে অন্যান্য আসামীদের গ্রেফতার ও তাদের দৃষ্টান্তমূলক কঠোর শাস্তি নিশ্চিত করতে হবে। যাতে ভবিষ্যতে কেউ এমন বর্বর জঘন্য ঘটনা ঘটানোর সাহস না পায়। বিজ্ঞপ্তি

 

Sharing is caring!

 

 

shares