উপসর্গ প্রকাশ হওয়ার কয়েক বছর আগেই রক্ত পরীক্ষায় ক্যান্সার শনাক্ত করা যাবে

সিএনবাংলা ডেস্ক :: ক্যান্সারের উপস্থিতি শনাক্ত করা যাবে। মঙ্গলবার প্রকাশিত সমীক্ষা প্রতিবেদনে এ কথা জানানো হয়।

চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের সিনো-ইউএস স্টার্টআপ গবেষকরা ক্যান্সারের কোন উপসর্গ ছাড়াই লোকদের রক্তের নমুনা সংগ্রহ করেছেন,এক থেকে চার বছর পরে তাদের ক্যান্সারের উপসর্গ দেখা দেয় এবং প্রচলিত পদ্ধতিতে ক্যান্সার শনাক্তের পরে তাদের চিকিৎসা দেয়া হয়। এই পাঁচ ধরণের ক্যান্সার হলো, পাকস্থলি, খাদ্যনালী, কোলন এবং ফুসফুস অথবা লিভার ক্যান্সার। কোন উপসর্গ ছাড়াই আগে যাদের রক্তের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে তাদের ৯১ শতাংশ লোকের অনেক পরে ক্যান্সারের উপসর্গ প্রকাশ পেয়েছে। এরফলে রক্তের আগাম টেস্টের মাধ্যমে প্রাথমিক পর্যায়ে উপসর্গ প্রকাশ পাওয়ার অগেই ক্যান্সার শনাক্ত করা সম্ভব।

সান দিয়াগোর ইউনিভার্সিটি অব ক্যালিফোর্নিয়ার বায়োইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের প্রধান এবং সিঙ্গলিরা জেনোমিকস এর শেয়ার হোল্ডার , গবেষণা নিবন্ধের সহ লেখক কুন জাং বলেছেন, “পারিবারিক বিবরণ, বয়স অথবা অন্যান্য ঝুঁকিপূর্ণ দিক বিবেচনায় নিয়ে উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছেন এমন লোকদের টেস্টে গুরুত্ব দেয়া হয়েছে। ”

প্রাথমিক পর্যায়ে ক্যান্সার শনাক্ত করা জরুরি, এতে বেঁচে থাকার সম্ভাবনা বেড়ে যায়, প্রাথমিক পর্যায়ে চিকিৎসা শুরু করা যায় এবং সার্জারি ,ওষুধ কিংবা রেডিয়েশনের মাধ্যমে টিউমার অপসারণ করা যায়। এখন পর্যন্ত প্রাথমিক পর্যায়ে ক্যান্সার শনাক্তের কার্যকর টেস্ট সামান্যই।

গবেষকরা ২০০৭ সাল থেকে ২০১৭ সাল পর্যন্ত ১০ বছর চীনে ১ লাখ ২০ হাজার লোকের ওপর জরিপ চালিয়ে ৬০০ বেশী লোকের ওপর তদারকি ও তাদের কাছ থেকে নিয়মিত রক্তের নমুনা সংগ্রহ করেছেন। রক্তের পরীক্ষায় ডিএনএ টেস্টে উপসর্গ প্রকাশ পাওয়ার আগেই বিভিন্ন ধরণের ক্যান্সারের স্বাক্ষর পাওয়া যায়। ক্যান্সারে প্রতি বছর বিশ্বে প্রায় ১ কোটি লোক মারা যায়।

সূত্র : বাসস

সিএনবাংলা/একেজে

Sharing is caring!

 

 

shares