ইসরায়েলকে পাত্তা দিচ্ছে না সৌদি, নেতানিয়াহুর গোপন বৈঠক বাতিল সৌদি যুবরাজের!

সিএনবাংলা ডেস্কঃ  ইসরায়েল ইস্যুতে সরগরম মধ্যপ্রাচ্য। মধ্যপ্রাচ্যে ইসরায়েলের আধিপত্য বাড়ানোর প্রচেষ্টা লক্ষ্য করা যাচ্ছে। আমিরাতের সাথে সম্পর্ক স্থাপন ও অন্যান্য দেশের সাথেও আলোচনার মধ্যে মধ্যপ্রাচ্যের সবচেয়ে প্রভাবশালী দেশ সৌদি আরবকে নিয়েও বেশ গুঞ্জন। তবে শুরু থেকেই সৌদি আরব ইসরায়েলকে পাত্তা দিচ্ছে না।  এবার মার্কিন মধ্যস্থতায় আগামী সপ্তাহে ওয়াশিংটনে ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহুর সঙ্গে একটি গোপন বৈঠকও বাতিল করলেন সৌদির ডি-ফ্যাক্টো নেতা ক্রাউন প্রিন্স মোহাম্মদ বিন সালমান।

জানা গেছে, ট্রাম্পের দল রিপাবলিকান পার্টির জাতীয় কনভেনশনের পরপরই বৈঠকটি হওয়ার কথা ছিল। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক সূত্র জানিয়েছেন, সম্পূর্ণ গোপনীয়তা রক্ষার কথা থাকলেও তা না হওয়ায় বৈঠকটি বাতিল করতে হয়েছে। মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প এবং তার জামাতা ও জ্যেষ্ঠ উপদেষ্টা জ্যারেড কুশনারের সমর্থনে সৌদি আরব ও ইসরায়েলের নেতাদের করমর্দনের সুযোগ তাই আপাতত নষ্ট হলো। মিডল ইস্ট মনিটর বলছে, বৈঠকটি দেশ দুটির মধ্যে সম্পর্ক সম্পূর্ণ স্বাভাবিক করার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না হলেও সেই পথে যাওয়ারই ইঙ্গিত।

বিন সালমান ও ট্রাম্পের মধ্যকার যৌথ চুক্তির অংশ ছিল এই বৈঠক। ট্রাম্প এবং কুশনারের জোরাজুরিতে যুবরাজ সালমান বৈঠকে অংশ নিতে রাজি হন জানিয়ে মিডল ইস্ট মনিটর বলছে, শান্তির দূত হিসেবে সৌদি আরবের ডি-ফ্যাক্টো নেতা যুবরাজ সালমানের জন্য এটাকে সুযোগ হিসেবেই দেখেছিল রিয়াদ কর্তৃপক্ষ।

বিন সালমানের এই বৈঠক বাতিলের ঠিক আগে আগে গত শুক্রবার ইসরায়েল ও যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে নির্ধারিত ত্রিপাক্ষিক বৈঠক বাতিলের ঘোষণা দেয় সংযুক্ত আরব আমিরাত। ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু আমিরাতের কাছে যুক্তরাষ্ট্রের এফ-৩৫ যুদ্ধবিমান বিক্রির বিরোধিতা করায় বৈঠকটি বাতিল হয়।

সূত্র : মিডল ইস্ট আই/ সিএনবাংলা / মান্না

Sharing is caring!

 

 

শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো খবর

 

 

shares