চতুর্থ শ্রেণীর ছাত্রী ধর্ষণ: সিলেটে ধর্ষক রুম্মান ও জনি গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক :: চতুর্থ শ্রেণীর এক ছাত্রীকে ধর্ষণের মামলায় সিলেট নগরীর আখালিয়া এলাকা থেকে র‌্যাব দুজনকে গ্রেফতার করেছে।

বুধবার (৭ অক্টোবর) সকাল ১১টায় গোপন তথ্যের ভিত্তিতে আখালিয়াস্থ বড়টিলা এলাকা থেকে রুম্মান মিয়া ও জহিরুল ইসলামকে গ্রেফতার করে র‌্যাব-৯।

রুম্মান মিয়া আখালিয়া এলাকার বড়বাড়ি সি ব্লকের জালালিয়া ১২ নং বাসার মৃত মফিজুল ইসলামের ছেলে এবং সুনামগঞ্জ থানাধীন তেগরিয়া গ্রামের সুহেল মিয়ার ছেলে জহিরুল ইসলাম জনি। বর্তমানে জনি আখালিয়া বড়বাড়ির বন্ধন ডি/১৮ শহীদ মিয়ার কলোনীতে বসবাস করছে।

ডেইলি সিএন বাংলা কে বিষয়টি নিশ্চিত করেন র‌্যাব- ৯’র কোম্পানী কমান্ডার সিপিসি-১ সিলেট।

জালালাবাদ থানার ওসি অকিল উদ্দিন ডেইলি সিএন বাংলা কে জানান, ধর্ষণের মামলায় র‌্যাব দুজনকে গ্রেফতার করেছে। এখনও তাদেরকে থানায় হস্তান্তর করা হয়নি।

ধর্ষণের ঘটনায় শনিবার (৩ অক্টোবর) সিলেট মেট্রোপলিটন পুলিশের জালালাবাদ থানায় এ মামলা (মামলা নং-৬) দায়ের করেন ধর্ষিত স্কুলছাত্রীর পিতা।

মামলার এজাহার সুত্রে জানা যায়, নির্যাতিতা মাদ্রাসাছাত্রী গত ২৫ সেপ্টেম্বর রাতে দিকে তার ভাইয়ের বন্ধু জনির স্ত্রী অসুস্থ শুনে তাকে দেখতে যায়। রাত ১২টার দিকে আখালিয়ার বড়টিলা এলাকার বাসিন্দা রোমান আহমদ (২৬) জনির বাড়ির সামনে এসে তাকে ডাকাডাকি শুরু করে। তখন সে বাইরে আসতে না চাইলেও জনির কথায় সে রোমানের সামনে যায়। তখন রোমান মাদ্রাসাছাত্রীর মুখ বেঁধে স্থানীয় শহীদ মিয়ার কলোনীর একটি কক্ষে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে।

সিএনবাংলা/জীবন

Sharing is caring!

 

 

shares