জয়বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতি পরিষদ’র ১৮৭ তম সাহিত্য আড্ডা

সিএনবাংলা ডেস্ক :: জয়বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতি পরিষদের ১৮৭ তম য়িমিত মাসিক সাহিত্য আড্ডা অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার ( ০২ অক্টোবর) বিকাল ৪ ঘটিকায় সিলেট কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে অনুষ্টিত হয়। আসরে সভাপতিত্ব করেন জয়বাংলা সাহিত্য ও সংস্কৃতি পরিষদের সিলেট জেলা সভাপতি ছড়াকার অজিত রায় ভজন।

প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সহ সভাপতি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল খালিক।

সাধারণ সম্পদক কবি মিজান মোহাম্মদের পরিচালনায় অনুষ্টিত আসরে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সহ সভাপতি কবি ও সাংবাদিক মোহাম্মদ নুরুল ইসলাম।

এতে বক্তব্য রাখেন কবি,সাংবাদিক হৃশিকেশ রায় শংকর, সংগঠনের সাবেক সভাপতি গীতিকবি হরিপদ চন্দ, সহ সভাপতি ছড়াকার ও সাংবাদিক দেবব্রত রায় দিপন,সহ সভাপতি প্রভাষক ও কবি জান্নাত আরা খান পান্না, কবি সুমন বনিক,কবি ও কাউন্সিলর নাজনিন আকতার কণা, কলামিষ্ট অমিতা বর্দ্ধন, কবি পারুল মজুমদার, ছড়াকার সফির আহমদ কামাল, প্রভাষক ও ছড়াকার মিহির মোহন, সাংগঠনিক সম্পাদক ছড়াকার প্রশান্ত লিটন,কবি মো: ফজলুল হক, কবি কামাল আহমদ, ছড়াকার নিরঞ্জন চন্দ্র চন্দ, কবি আসমা বেগম, ছড়াকার ফারজানা হক বৃষ্টি, গীতিকার বাহা উদ্দিন বাহার, সৈয়দ মুক্তদা হামিদ, ছড়াকার বিজন চন্দ্র দাস বিজয়, কবি অজয় বৈদ্য অন্তর, ছড়াকার ও সাংবাদিক আব্দুল কাদির জীবন, মোঃ শাহীন আলম, কবি রোকসানা বেগম, কবি হেলাল আহমদ, শুভাশীষ চক্রবর্তী সজিব, আকাশ দেব, সজিব আহমেদ প্রমুখ।

প্রধান অতিথির বক্তব্যে সিলেট মহানগর আওয়ামী লীগের সাবেক সহ সভাপতি ও বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল খালিক বলেছেন, একটা সময় ছিল যখন জয়বাংলা উচ্চারণ করা যেতোনা। কারণ জয়বাংলা শুধু একটি উচ্চারণ নয়, জয়বাংলা একটি শক্তি। যে শক্তি বলেই বিশ্বের মানচিত্রে বাংলাদেশ নামক একটি রাস্ট্রের স্থান হয়েছে।

তিনি বলেন, যেখানে লাখো কণ্ঠে ‘জয়বাংলা’ ধ্বণিত হয়, সেখানেই লাল সবুজের বাংলাদেশ। এই কণ্ঠ কখনোই খারাপ প্রবৃত্তিতে লিপ্ত হতে পারেনা।

সিএনবাংলা/জীবন

Sharing is caring!

 

 

shares