মহিপুরে এল.পি. (সিলিন্ডার গ্যাস) ও পেট্রোল বিক্রি হচ্ছে অনুমোদনবিহীন ও অবৈধভাবে, দূর্ঘটনা আতঙ্কে এলাকাবাসী

কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি : মহিপুরে চরম ঝুকিপূর্ণ ভাবে বিক্রি হচ্ছে এল.পি গ্যাস (সিলিন্ডার গ্যাস) ও পেট্রোল।
নেই কোন প্রয়োজনীয় নিরাপত্তা ব্যবস্থা ও ফায়ার সার্ভিস এর অনুমোদন।

যে কোন সময় বড় ধরনের দূর্ঘটনার আশংকা করছেন স্থানীয়রা। সরেজমিনে ঘুরে দেখা গেছে,মহিপুর থানাসদরসহ বিভিন্ন বাজারে মুদি দোকান হতে শুরু করে চায়ের দোকান, লোডের দোকান,প্লাস্টিক সামগ্রীর দোকান, টিনের দোকান, স্যানিটারী দোকানসহ যে কোন দোকানের সামনে রাস্তার পাশে এলপি গ্যাস (সিলিন্ডার গ্যাস) সারিবদ্ধ রেখে বিক্রি হচ্ছে এবং এর সাথে অনুমোদন ছাড়া পেট্রোলও অবাধে বিক্রি হচ্ছে।

এসব অধিকাংশ দোকানেরই এলপি গ্যাস ও পেট্রোল বিক্রি করার মত অনুমোদন পত্র নেই।

স্থানীয় সূত্রমতে জানা গেছে, কোন রকম নিয়ম-নীতি না মেনে শুধু ট্রেড লাইসেন্স নিয়ে আবার কেউ কেউ অনুমোদন ও অগ্নিনির্বাপক ও বিস্ফোরক লাইসেন্স ছাড়াই এ জ্বালানি ও পেট্রোল ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে। এসব দোকানে নেই কোন আগুন নির্বাপক যন্ত্র। আর সেই যন্ত্র না থাকায় যে কোন মূর্হুতে বড় ধরনের দূর্ঘটনা ঘটলে তার প্রতিকারও জানা নেই এসব ব্যবসায়ীদের। জনবহুল এলাকায় ঝুকিপূর্ণ ভাবেই এসব ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছে।

মহিপুর থানা এলাকাসহ আলিপুর বাজার, কুয়াকাটা পৌরসভা, বাবলাতলা বাজার, চাপলি বাজার, গ্রাম-গঞ্জের ছোট-বড় বাজারগুলোতে এলপি গ্যাস বিক্রি হচ্ছে।

এলপি গ্যাসের চাহিদা বাসা-বাড়ীতে বৃদ্ধি পাওয়ার কারণেই
কোন ধরনের নিয়ম-নীতির তোয়াক্কা না করেই এ ধরনের বিস্ফোরক প্রকাশ্যে বিক্রি করছে।

এ বিষয়ে কলাপাড়া উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা আবুহাসনাত মো: শহিদুল হক বলেন খুব দ্রুতই  ফায়ার সার্ভিস এর কর্মকর্তাদের সাথে আলোচনা করে এসকল অবৈধ দোকান বন্ধে অভিযান পরিচালনা এবং আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

সিএনবাংলা /শোভন

Sharing is caring!

 

 

shares