ভারতে ‘৭৮৬’ ট্যাটু করার যুবকের হাত কাটল দুর্বৃত্তরা

সিএনবাংলা ডেস্ক :: ডান হাতে ট্যাটু ‘৭৮৬’, আর এই অভিযোগে এক ব্যক্তির হাত কেটে নিল দুর্বৃত্তরা। এই ঘটনাটি ঘটেছে ভারতের হরিয়ানার পানিপথে। গত ২৪ আগস্ট ঘটনাটি ঘটলেও ৭ সেপ্টেম্বর থানায় অভিযোগ দায়ের করা হয়। এরপরই বিষয়টি সামনে আসে।

২৮ বছর বয়সী ওই ব্যক্তির নাম ইখলাখ সালমানি, পেশায় একজন নাপিত। পানিপথে কাজের সন্ধানে সাহারানপুরে আসেন নানৌতার বাসিন্দা ইখলাখ। শহরে পৌঁছানোর পর সেখানে কোন স্থায়ী ঠিকানা না থাকায় রাতে কিশানপুরা এলাকায় একটি পার্কে বিশ্রাম নেওয়ার জন্য সেখানে অপেক্ষা করতে থাকেন। এসময় কয়েকজন ব্যক্তি তার কাছে এসে তার নাম-ঠিকানা জানতে চায়। কিন্তু ইখলাখের আসল পরিচয় জানতে পারার পরই তার ওপর হামলা চালায় ওই যুবকরা।

এরপর রাস্তায় গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে ফেলে রাখা হয়। ইখলাখ যখন তার জ্ঞান ফিরে পায় তখন স্থানীয় এক বাড়িতে পানি চায়। ওই বাড়িওয়ালা ইখলাখকে ঘরের ভিতর টেনে নিয়ে গিয়ে কাঠের লাঠি দিয়ে প্রচণ্ড মারধর করে। কিছু পরেই ইখলাখ বুঝতে পারেন যে, পার্কে যে লোকগুলো তার ওপর হামলা চালিয়েছিল, ঘরের ভিতরও সেই দুর্বৃত্তরাই তার ওপর হামলা চালিয়েছে।

জানা গেছে ইখলাখের ডান বাহুতে ‘৭৮৬’ ট্যাটু করা ছিল। সংখ্যায় ‘৭৮৬’ কে আরবি ভাষার ‘বিসমিল্লাহ’ শব্দের প্রতিরূপ ধরা দুর্বত্তরা তাকে পরিষ্কার জানিয়ে দেয় যে তারা কোনভাবেই এটা লিখতে দেবে না। এরপরই করাত দিয়ে তার ডান হাত কেটে নেওয়া হয়। এর পর ইখলাখকে স্থানীয় রেলওয়ে স্টেশনের কাছে নিয়ে গিয়ে রেল লাইনের ওপর ফেলে দেওয়া হয়-যাতে মনে হয় ট্রেন দুর্ঘটনায় তার হাত কাটা গেছে।

পরদিন সকালে ইখলাখের যখন জ্ঞান ফেরে সে স্থানীয় এক ব্যক্তির সাহায্য চায়। তিনিই লাইনের ওপর থেকে ইখলাখকে তোলেন এবং খবর দেওয়া হয় তার বাসায়। গত ৭ সেপ্টেম্বর পানিপথের চাঁদনি বাগ পুলিশ থানায় একটি এফআইআর দায়ের করা হয়। অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত শুরু করেছে পুলিশ, যদিও এখনও পর্যন্ত কাউকে আটক করা সম্ভব হয়নি।

সিএনবাংলা/জীবন/বিডি প্রতিদিন

Sharing is caring!

 

 

শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো খবর

 

 

shares