কুয়াকাটা পৌর ছাত্রলীগ সভাপতি পুলিশের উপর হামলার ঘটনায় রিমান্ডে

রাসেল কবির মুরাদ , কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি :কুয়াকাটায় পুলিশের কর্তব্যকাজে বল প্রয়োগ করে বাঁধাপ্রদান ও পুলিশের উপর হামলা করে ১ পুলিশ উপ-পরিদর্শকসহ ৩ পুলিশসদস্যকে আহত করার তদন্ত মামলায় গ্রেফতারকৃত কুয়াকাটা পৌর ছাত্রলীগ সভাপতি মজিবর (২৯) ১ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত ও তার ৪ সহযোগীকে ২ দিনের জেলগেটে জিজ্ঞাসাবাদের অনুমতি দিয়েছেন আদালত।

বৃহস্পতিবার কলাপাড়া সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আদালতের জ্যেষ্ঠ বিচারক শোভন শাহরিয়ার এ আদেশ প্রদান করেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মহিপুর থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) মো: মিজানুর রহমান আদালতে আসামীদের ৫দিনের রিমান্ড আবেদন করেন। বৃহস্পতিবার রিমান্ড আবেদনের শুনানীতে আসামী পক্ষে প্রায় ১ ডজন আইনজীবী অংশ নেয়।মহিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো: মনিরুজ্জামান বলেন, কুয়াকাটায় আবাসিক হোটেল ’কিংস’ এ দীর্ঘদিন ধরে এক শ্রেনীর জুয়াড়ীরা টাকার বিনিময়ে জুয়া খেলে আসছিল। গোপন সংবাদের ভিত্তিতে পুলিশ তাদের আটক করতে গেলে জুয়াড়ীরা পুলিশের উপর হামলা চালায়।

উল্লেখ্য, গত ১৭আগষ্ট মধ্যরাতে কৃয়াকাটায় আবাসিক হোটেল কিংস’র ১০২ নম্বর কক্ষে জুয়ার আসরে অভিযান চালায় মহিপুর থানা পুলিশ। অভিযানে নগদ টাকা ও তাস সহ ৫ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। এসময় জুয়াড়ীরা পুলিশের কর্তব্য কাজে বল প্রয়োগ করে বাঁধা প্রদান ও পুলিশের উপর হামলায় মহিপুর থানার পুলিশ উপ-পরিদর্শক মো: আসাদুজ্জামান জুয়েল (২৮), পুলিশ কনেষ্টেবল মো. ইব্রাহিম (৩০) মৃদুল কান্তি বেপারী (২৩) ও মো: রফিকুল
ইসলাম (২২) আহত হন । আহতদের ঘটনার দিন রাত আড়াইটার দিকে কলাপাড়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়। পরে ওই রাতেই পুলিশ উপ-পরিদর্শক মো: আসাদুজ্জামান জুয়েল বাদী হয়ে ছাত্রলীগ সভাপতি মো: মজিবর (২৯), তার সহযোগী হোটেল বনানী প্যালেসের ম্যানেজার শাহীন খান (৩০), মহিপুর সদর ইউনিয়নের গোলাম মাওলা (৩০), রবিউল (২৯) ও কলিম মাহমুদ (৩২) সহ ৮ জনের নামে মামলা দায়ের করে। মামলায় অজ্ঞাত আরও ৪/৫জনকে আসামী করা হয়।

 

সি এন বাংলা /শোভন

Sharing is caring!

 

 

shares