গাছ গণনা ও স্বজনদের শনাক্ত করতে পারে!

সিএনবাংলা ডেস্ক :: গবেষকরা দাবি করেছেন, গাছও গণনা করতে পারে। গাছেরও হিসাব-নিকাশের প্রয়োজন হয়। এমনকি পরিস্থিতি অনুযায়ী উদ্ভিদ সিদ্ধান্ত গ্রহণ, ঘটনা স্মরণে রাখা এবং তারা তাদের স্বজনও শনাক্ত করে যোগাযোগ করতে পারে।

ইতালির ইউনিভার্সিটি অব পাডুকার অধ্যাপক আমবার্তো ক্যাসটিয়েলো বলেন, গাছ সচেতনভাবে আচরণ করে-এমন কথা শুনে রীতিমতো বিস্মিত হন অনেকে। তবে বেশকিছু গবেষণার ফল বলছে, গাছের সচেতনতা বা জ্ঞানভিত্তিক আচরণ করার ক্ষমতা রয়েছে।

তিনি বলেন, ভেনাস ফ্লাইট্র্যাপ নামের গাছটির মাছি ধরার কৌশল নিয়ে গবেষণা হয়েছে। দেখা গেছে, একটি মাছি বা কীট তাদের ফাঁদের কাছে যাওয়ার আগে কাণ্ডের ওপর দিয়ে ঠিক কত কদম হেঁটেছে বা কত সময় নিয়েছে তা স্মরণ রাখতে পারে এই উদ্ভিদ। পরেরবার এই গাছ একই বা অন্য কীটের ক্ষেত্রে আগেরটির কদম ও সময় গণনা করে এবং কীটটিকে ফাঁদে ফেলে। ২০ সেকেন্ডের মধ্যে দ্বিতীয়বার আক্রমণের ক্ষেত্রে এমনটি হয়েছে বলে বিজ্ঞানীরা প্রমাণ পেয়েছেন। এর মানে হলো, এই উদ্ভিদ তার আগের সংকেত বা প্রথম আক্রমণের ঘটনা স্বল্প সময়ের জন্য মনেও রাখতে পারে।

অন্য এক গবেষণায় দেখা গেছে, মিমোস পুদিকা বা লজ্জাবতী গাছও ঘটনা মনে রাখতে এবং প্রতিক্রিয়া দেখাতে পারে। এই উদ্ভিদের গায়ে কোনো কিছু পড়লে সাধারণত এটি গুটিয়ে যায়। কিন্তু বারবার এমনটি হলে এক সময় এটি আর গুটায় না। অর্থাৎ এটি প্রতিরক্ষামূলক আচরণ করে; কারণ উপলব্ধি করতে পারে, এতে তার কোনো ক্ষতি হবে না।

পৃথক গবেষণায় দেখা গেছে, গুল্মজাতীয় গাছ স্বজন শনাক্ত করতে পারে। এই গাছ পার্শ্ববর্তী স্বজাতীয় উদ্ভিদগুলোকে খাদ্যের উৎস সম্পর্কে সচেতনও করতে পারে। এরা শিকড়ের সাহায্যে নিকটবর্তী স্বজনকে প্রাকৃতিক খাবারের উৎস সম্পর্কে সংকেত পাঠিয়ে থাকে।

সিএনবাংলা/জীবন

Sharing is caring!

 

 

শেয়ার করুন

এ বিভাগের আরো খবর

 

 

shares