কলাপাড়ায় গানেগানে জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম’র প্রতি শ্রদ্ধাঞ্জলী ও মৃত্যুবার্ষিকী উদ্যাপিত

রাসেল কবির মুরাদ ,কলাপাড়া(পটুয়াখালী)প্রতিনিধি :কলাপাড়ায় জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম’র ৪৪ তম মৃত্যুবার্ষিকী পালনের মধ্য দিয়ে নজরুল একাডেমির আত্মপ্রকাশ ঘটেছে। নতুনদের প্রধান্য দিয়ে পুরাতন সাংস্কৃতিক কর্মীর সমন্বয়ে ৪১ সদস্য বিশিষ্ট কমিটি নিয়ে এর
যাত্রা শুরু হয়। এই কমিটির উদ্যোগেই বৃহস্পতিবার রাত ৯টার দিকে পৌর শহরের নজরুল একাডেমি’র অস্থায়ী কার্যালয়ে আয়োজন করা হয় জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম’র ৪৪ তম মৃত্যুবার্ষিকী ও শ্রদ্ধাঞ্জলী।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন কলাপাড়া শিল্পীগোষ্ঠির সভাপতি মাহবুবুর রহমান আজাদ, উপজেলা নজরুল একাডেমির সভাপতি আতিকুর রহমান টিপু, সাধারন সম্পাদক জাকিউন নসিব চঞ্চল, কলাপাড়া রিপোর্টার্স ইউনিটির সিনিয়র সহ-সভাপতি উত্তম কুমার হাওলাদার, সাধারন সম্পাদক ফরিদ উদ্দিন বিপু, কলাপাড়া রিপোর্টার্স ক্লাবের সভাপতি এস কে রঞ্জন, সাংবাদিক ফরাজি মোহাম্মদ ইমরান, সাংস্কৃতিক কর্মী টিংকু রায়, এস এম মাইনুল, জাবের, তুষারসহ বিভিন্ন শ্রেনী পেশার মানুষ।

ঘুমিয়ে গেছে শ্রান্ত হয়ে আমার গানের বুলবুলি, যে ভালবাসা মোরে ভুলিও না, আমি চির তরে দুরে চলে যাব, মনে পরে আজ সে কেন জনমে বিদায় সন্ধ্যা বেলা, মসজিদের ওই পাশে আমায় কবর দিও ভাই একের পর এক এসব গানের সুরের মুর্ছনায় নজরুল ভক্তদের মুগ্ধ করে তোলেন সুরের যাদুকর ও এক সময়ের এ অঞ্চলের মঞ্চ কাপানো শিল্পী শাহআলম মন্টু ও প্রভাষক শাহবুদ্দিন সিহাব। তাদের গানের সাথে তবলায় ঝংকার তুলেন পাপন। গানের ফাঁকে ফাঁকে চলে নজরুলের কবিতা আবৃত্তি।

অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেনসাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব ও টেলিভিশন অভিনেতা কল্লোল বিশ্বাস। জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম’র মৃত্যুদিবস ও শ্রদ্ধাঞ্জলী অনুষ্ঠান সমাপ্ত হয় উপস্থিত নজরুল ভক্ত ও শিল্পীদের সম্মিলিত কন্ঠে মোরা ঝঞ্ঝার মত উদ্দ্যম, মোরাঝর্নার মত চঞ্চল, মোরা বিধাতার মত নির্ভয়, মোরা প্রকৃতির মত স্বচ্ছল – এই কোরাস গানের মধ্যে দিয়ে।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ব বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মো.মাসুম বিল্লাহ বলেন, আমাদের জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের কর্ম ও স্মৃতি রক্ষার্থে এ একাডেমির মাধ্যমে তার লেখা কবিতা ও গানের চর্চা যেনো অব্যাহত থাকে এমন আশা ব্যক্ত করেন এ শিক্ষার্থী।সাংস্কৃতিক ব্যাক্তিত্ব ও টেলিভিশন অভিনেতা কল্লোল বিশ্বাস বলেন, দীর্ঘ দিন ধরে কলাপাড়ার সংস্কৃতি  অঙ্গন ঝিমিয়ে পড়েছে। এক সময় এ অঞ্চলের শিল্পীরা দেশের বিভিন্ন স্থানে সুনাম অর্জন করেছে। আশা করি ঝিমিয়ে পরা সাংস্কৃতিক অঙ্গন নজরুল একাডেমির মাধ্যমে আবার জাগ্রত হবে
এবং নতুন প্রজন্ম সুস্থ সাংস্কৃতিক ধারা ফিরে পাবে।

কলাপাড়া উপজেলা নজরুল একাডেমির সভাপতি আতিকুর রহমান টিপু বলেন, আমারা কেবলমাত্র দীর্ঘ দিনের ঝিমিয়ে পরা সাংস্কৃতির অংঙ্গনকে পুন:রায় উজ্জিবিত করার চেষ্টা করছি।

সিএনবাংলা/শোভন

Sharing is caring!

 

 

shares