মোটরবাইক চালিয়ে গায়ে হলুদ ও বিয়ের আসরে কনে!

সিএনবাংলা ডেস্ক:: মোটরসাইকেল চালাতে পারেন। এ কারণে নিজের বিয়ের অনুষ্ঠানকে ব্যতিক্রমী করতে ভিন্নধর্মী ভাবনা সবসময় তার মাথায় ছিল। এই ভাবনা থেকেই গায়ে হলুদের দিনে শহরজুড়ে বন্ধু-বান্ধব ও সাথীদের নিয়ে মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা করেন কনে। আর ব্যতিক্রমী এ আয়োজন করে ফেসবুকে ভাইরাল হয়েছেন যশোরের মেয়ে ফারহানা আফরোজ।

গত ১৩ আগস্ট গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান ঘিরে এমন আয়োজন করেন কনে ফারহানা। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‌‘সবাই নেচেগেয়ে উদযাপন করেছি গায়ে হলুদের অনুষ্ঠান। আমি যেহেতু বাইক চালাতে পারি তাই বাইক চালিয়ে অনুষ্ঠান করেছি। ব্যতিক্রমী কিছু করার ভাবনা থেকেই এমন আয়োজন। এটি আমার নিজস্ব উদ্যোগে করেছি। অনেক আনন্দ করেছি বন্ধু-বান্ধব ও সাথীরা।’

ফারহানা আফরোজ জানান, ২০০৭ সাল থেকে তিনি বাইক চালান। বিয়ের অনুষ্ঠানকে ব্যতিক্রমী করতে ভিন্নধর্মী ভাবনা তার মাথায় ছিল। এই ভাবনা থেকেই তিনি এমন আয়োজন করেছেন।

তিনি আরও বলেন, ‘বিয়ে, গায়ে হলুদের অনুষ্ঠানে সবাই নেচেগেয়ে উৎসব করেছেন। আমি যেহেতু বাইক চালাতে পারি; তাই বাইক চালিয়েই গায়ে হলুদ ও বিয়ের অনুষ্ঠানে অ্যান্ট্রি দেওয়ার পরিকল্পনা করেছি।’

যশোর সার্কিট হাউজের সামনে ফারহানা আফরোজের বাড়ি। যশোর সরকারি বালিকা বিদ্যালয় থেকে ২০১১ সালে এসএসসি ও ২০১৩ সালে যশোর আব্দুর রাজ্জাক কলেজ থেকে এইচএসসি পাস করেন। তিনি এখন ড্যাফোডিল ইন্টারন্যাশনাল ইউনিভার্সিটি (ডিআইইউ) থেকে এইচআর-এ এমবিএ করছেন।

গত ১৪ আগস্ট ছিল ফারহানার বিয়ে। বর হাসনাইন রাফি পাবনার কাশিনাথপুরের বাসিন্দা। পেশায় টেক্সটাইল ইঞ্জিনিয়ার বর ঢাকার গাজীপুরে কর্মরত।

বিয়ের অনুষ্ঠান ক্যামেরায় ধারণ করা প্রসঙ্গে নাহরুল হায়াত তরু জানান, দীর্ঘদিন ধরেই ক্যামেরায় কাজ করছেন। কিন্তু এমন ব্যতিক্রমী বিয়ে-গায়ে হলুদের আয়োজন দেখেননি। এই গায়ে হলুদের ছবি ফেসবুকে ছড়িয়ে পড়ায় অনেকেই তার কাছে ফোন করছেন।

সিএনবাংলা/একেজে

Sharing is caring!

 

 

shares