পদ্মার শিকার এবার ‘চরাঞ্চলের বাতিঘর’; শিক্ষার্থীদের চোখে অশ্রু

সি.এন.বাংলা ডেস্কঃ পদ্মার বুকে বিলীন হয়ে গেলো শত শত শিক্ষার্থীদের প্রাণের বিদ্যালয় নুরুদ্দিন মাদবরের কান্দি এস.ই.এস.ডি.পি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়। শিবচরে অসংখ্য ঘরবাড়ির মতো বন্দরখোলা ইউনিয়নে অবস্থিত এই বিদ্যালয়টিও গ্রাস করে ফেলেছে পদ্মা। বিদ্যালয়টিকে বলা হতো ‘চরাঞ্চলের বাতিঘর’।

বন্যার এমন রাক্ষুসে প্রভাবের জন্য পুরো এলাকায় নেমেছে শোকের ছায়া। শিক্ষক,শিক্ষার্থী আর অভিভাবকরা ভেঙে পড়েছেন কান্নায়।

বুধবার মধ্যরাতে বিদ্যালয়টির মাঝ বরাবর দ্বিখণ্ডিত হয়ে হেলে পড়ে। আজ বৃহস্পতিবার বিকাল পর্যন্ত বিদ্যালয়টি নদীর দিকে আরো হেলে পড়েছে যা প্রায় নদী গর্ভে বিলীনের পথে বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে।

২০০৯ সালে স্থাপিত হয় নুরুদ্দিন মাদবরের কান্দি এস. ই.এস.ডি.পি মডেল উচ্চ বিদ্যালয়টি। বন্দোরখোলা ইউনিয়নের চরাঞ্চলে স্থাপিত এই বিদ্যালয়টির কারণে শিবচর উপজেলার বন্দোরখোলা ইউনিয়নের মমিন উদ্দিন হাওলাদারকান্দি. জব্বার আলী মুন্সীকান্দি, বজলু মোড়লের কান্দি, মিয়া আজম বেপারীর কান্দি, রহমত হাজীর কান্দি, জয়েন উদ্দিন শেখ কান্দি, মসত খাঁর কান্দিসহ প্রায় ২৪টি গ্রাম ও ফরিদপুর জেলার সদরপুর উপজেলার চর নাসিরপুরসহ বেশ কয়েকটি গ্রামের ছেলে-মেয়েরা এই বিদ্যালয়ে লেখাপড়া করতো। বিদ্যালয়টি ছিল চরাঞ্চলের একমাত্র দৃষ্টিনন্দন তিনতলা ভবনসহ আধুনিক সুবিধা সমৃদ্ধ একটি উচ্চ বিদ্যালয়।

সিএনবাংলা/এসআরএইচ

Sharing is caring!

 

 

shares