ফ্রান্স ও ইতালীতে দুই বাংলাদেশী খুন

অনুক্ত কামরুল, বিশেষ প্রতিনিধি, ফ্রান্স থেকে

ফ্রান্সে আফ্রিকাদের হাতে একজন ও ইতালিতে বাংলাদেশীদের হাতে বাংলাদেশী খুনের ঘটনা ঘটেছে। ১৮ জুলাই শনিবার দুই দেশে দুই প্রবাসী খুনের ঘটনায় কমিউনিটির মাঝে শোক ও ক্ষোভ বিরাজ করছে।

জানা যায়, রাজধানী প্যারিস থেকে অল্প দূরে (Cergy) সেখজি এলাকায় শনিবার রাতে এ নির্মম ঘটনা ঘটে। নিহত প্রবাসীর নাম জালাল (৩০)। তিনি সিলেট নগরির আখালিয়া ধামালি পাড়া সোনালি আবাসিক এলাকার মৃত আম্তর আলীর ছেলে।

হত্যাকাণ্ডে ২ জন আফ্রিকান অংশ নেয় বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। পুলিশ জানায়, জালাল ফ্রান্সের সেখজি এলাকাতে সরকারি একটি বাসায় আর এক বাংলাদেশী সহ দুজন আফ্রিকান নাগরিকের সাথে একত্রে বসবাস করতেন।

শনিবার রাতে আফ্রিকান ২ জন মিলে তাকে হত্যা করে । পরে প্যান্টের বেল্ট দিয়ে পালঙ্কের খুঁটির সাথে ঝুলিয়ে রাখে জালালের মৃতদেহ । একটি মোবাইলের সূত্রধরে এই খুনের ঘটনা ঘটে বলে জানা যায়। লাশটি পুলিশ হেফাজতে রয়েছে এবং রুমের বাকি তিন জনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করেছে বলে জানা গেছে।

এদিকে, একই দিন ইতালির (১৮ জুলাই শনিবার) রাতে বাণিজ্যিক রাজধানী মিলানে নৃশংসভাবে খুন হয়েছেন রশিদ হাওলাদার (৪৪) নামে এক বাংলাদেশি। হতভাগ্যের বাড়ি মুন্সিগঞ্জ জেলায়। ছয় বাংলাদেশি মিলে তাকে খুন করেছেন বলে জানা গেছে। অপরাধীদের ধরতে মাঠে নেমেছে পুলিশ। করোনা কেলেঙ্কারির পর এবার নিজ দেশের লোক খুনের ঘটনায় ইতালিতে বড় ধরনের ইমেজ সংঙ্কটে পড়ছেন বাংলাদেশী অভিবাসীরা।

জানা যায়, মিলান মহানগরের প্রাণকেন্দ্রে স্তাদেরা এলাকায় মন্তেগানি রোডে পৌর বাজারের পুলিশের প্রথম গাড়ি এবং এম্বুলেন্স আসার আগেই খুনিরা দ্রুত পালিয়ে যায় ঘটনাস্থল থেকে। স্থানীয় সান পাওলো হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার কিছুক্ষণ পরই না ফেরার দেশে পাড়ি জমান রশিদ হাওলাদার।

Sharing is caring!

 

 

shares